ফুলবাড়ীয়া হতে ৩৮তম বিসিএসে সুপারিশপ্রাপ্ত যারা

প্রকাশিত: ৫:৫২ অপরাহ্ণ, জুলাই ১১, ২০২০

মো. আ. জব্বারঃ গত ৩০জুন মঙ্গলবার ৩৮তম বিসিএসের চূড়ান্ত ফল প্রকাশ করেছে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। প্রকাশিত চূড়ান্ত ফলাফলে ফুলবাড়ীয়া উপজেলা থেকে বিভিন্ন ক্যাডারে ১২জন সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন। সুপারিশপ্রাপ্ত ১২জনের মধ্যে ৪জনই ফুলবাড়ীয়া আল হেরা একাডেমী (উচ্চ বিদ্যালয়) থেকে এসএসসি পাশ করেছে বলে গেছে। বিভিন্ন ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্তরা হলেনঃ

প্রশাসন ক্যাডার এ সহকারী কমিশনার এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : পাঁচ কুশমাইলের মোঃ ইসমাইল হোসেনের পুত্র জুয়েল মিয়া। সে ২০০৯ সালে আল-হেরা একাডেমি থেকে এসএসসি, ২০১১ সালে ফুলবাড়ীয়া ডিগ্রী কলেজ থেকে এইচএসসি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ ও এমবিএ পাশ করেন।

শিক্ষা ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : ফুলবাড়ীয়া পৌরসভার গোরস্থান এলাকায় বসবাসরত শফিকুল ইসলাম এর পুত্র সাখাওয়াতুল ইসলাম। তার গ্রামের বাড়ী ঘাটাইলের দুলালিয়া। সে ২০০৯ সালে আল-হেরা একাডেমি থেকে এসএসসি, ২০১২ সালে ময়মনসিংহস্থ আলমগীর মনসুর (মিন্টু) মেমোরিয়াল কলেজ থেকে এইচএসসি এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইতিহাসে অনার্স ও মাস্টার্স পাশ করেন।

প্রাণিসম্পদ ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : ফুলবাড়ীয়া পৌরসভাস্থ পুরাতন গরুহাটার মোঃ সুলতান আলী এর পুত্র জাফরুল হাসান রিপন। সে ২০০৮ সালে আল-হেরা একাডেমি থেকে এসএসসি, ২০১০ সালে ময়মনসিংহস্থ শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজ থেকে এইচএসসি, ২০১৫ সালে বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেটেরিনারি অনুষদ থেকে ডিভিএম (¯œাতক) এবং ২০১৭ সালে মাইক্রোবায়োলজি এন্ড হাইজিন বিভাগ থেকে ভেটেরিনারি পাবলিক হেলথ এন্ড ফুড হাইজিন-এ স্নাতকোত্তর পাশ করেন।

কৃষি ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : ফুলবাড়ীয়া উপজেলার বাক্তা ইউনিয়নের কৈয়ারচালা গ্রামের মৃত- কাজিম উদ্দিন আকন্দ এর পুত্র রুহুল আমিন। সে ২০০৭ সালে আল-হেরা একাডেমি থেকে এসএসসি, ২০০৯ সালে শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজ থেকে এইচএসসি এবং শেরে বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স (কৃষি) ও মাস্টার্স (কৃষি উদ্ভিদবিদ্যা) পাশ করেন। বর্তমানে সে শিবগঞ্জ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মরত আছেন।

সাধারণ শিক্ষা ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : উপজেলার রাধাকানাই ইউনিয়নের নূরুল ইসলাম এর পুত্র আসাদুজ্জামান আসাদ। সে ২০০৬ সালে রাধাকানাই উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ২০০৮ সালে ফুলবাড়ীয়া ডিগ্রী কলেজ থেকে এইচএসসি এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগ হতে অনার্স ও মাস্টার্স পাশ করেন।

সড়ক ও জনপথ ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : পুটিজানা ইউনিয়নের বৈলাজান গ্রামের এম. এ. ইউসুফ এর পুত্র এহতামুল হাসান সিফাত। সে ২০০৮ সালে ঢাকাস্থ মনিপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ২০১০ সালে ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল কলেজ থেকে এইচএসসি এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (বুয়েট) থেকে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং-এ (বিএসসি) পাশ করেন।

শিক্ষা (ম্যানেজমেন্ট) ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : উপজেলার পুটিজানা ইউনিয়নের বেড়িবাড়ী সরাতীয়া গ্রামের বরকত আলম এর পুত্র শামীম আহাম্মেদ। সে ২০০৯ সালে আল-আমীন উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ২০১১ সালে ময়মনসিংহ কমার্স কলেজ থেকে এইচএসসি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ম্যানেজমেন্ট-এ বিবিএ ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিএ (এইচআরএম) পাশ করেন।

প্রাণিসম্পদ ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : ফুলবাড়ীয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের মোঃ আব্দুল খালেক এর পুত্র এ.এফ.এম. ফয়জুল ইসলাম। সে ২০০৫ সালে সরকারি ফুলবাড়িয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ২০০৭ সালে ফুলবাড়িয়া ডিগ্রি কলেজ থেকে এইচএসসি এবং বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এনিম্যাল হাজবেন্ড্রি-এ বিএসএসি (অনার্স) ও এনিম্যাল ব্রিডিং এন্ড জেনেটিক্স-এ এম.এস পাশ করেন। বর্তমানে সে পোল্ট্রি ডেভেলপমেন্ট অফিসার হিসেবে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরে কর্মরত আছেন।

কৃষি ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : পৌরসভাস্থ ফুলবাড়িয়া হাই স্কুল রোডের মোঃ মোকছেদ আলীর পুত্র কেবিএম ওমর ফারুক তুহিন। সে ২০০৭ সালে সরকারি ফুলবাড়িয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ২০০৯ সালে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, ময়মনসিংহ থেকে এইচএসসি এবং বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স (কৃষি) ও মাস্টার্স (উদ্যানতত্ত্ব) পাশ করেন।

তথ্য ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : উপজেলার ১০নং কালাদহ ইউনিয়নের বিদ্যানন্দ গ্রামের আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মাও. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক এর পুত্র মোঃ লুৎফর রহমান। সে ২০০৫ সালে শিবরামপুর উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ২০০৭ সালে ঢাকা সিটি কলেজ থেকে এইচএসসি এবং বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএসসি (এগ্রিঃ ইঞ্জিনিয়ারিং) ও এম.এস (এফপিএম) পাশ করেন। বর্তমানে সে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সহকারী পরিচালক হিসেবে কর্মরত আছেন।
পুলিশ ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : উপজেলার চকরাধাকানাই গ্রামের আব্দুস সালাম বেপারী এর পুত্র জহিরুল ইসলাম। সে ২০০৮ সালে ইচাইল উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ২০১০ সালে কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ, ময়মনসিংহ থেকে এইচএসসি এবং জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং পাশ করেন।

শিক্ষা (হিসাববিজ্ঞান) ক্যাডারে সুপারিশপ্রাপ্ত হয়েছেন : উপজেলার জোরবাড়ীয়া গ্রামের মোজাম্মেল হক এর কন্যা ছাহেরা খাতুন। সে ২০০৭ সালে ফুলবাড়ীয়া পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি, ২০০৯ সালে ফুলবাড়ীয়া ডিগ্রী কলেজ থেকে এইচএসসি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিবিএ ও এমবিএ পাশ করেন।
প্রকাশিত ফলাফলের মধ্যদিয়ে ৩৮তম বিসিএসের ফলপ্রত্যাশীদের অপেক্ষার পালা শেষ হলো। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে মৌখিক পরীক্ষা শেষ হয়।

৩৮তম বিসিএস এ সুপারিশ প্রাপ্ত মেধাবীদের প্রতি ফুলখড়ি পরিবারের পক্ষ হইতে আন্তরিক শুভেচ্ছা।