কিডনী রোগে আক্রান্ত কেয়া আক্তার বাঁচতে চায়

Jamal Jamal

Khan

প্রকাশিত: ২:৪৫ অপরাহ্ণ, জুলাই ৫, ২০২০
মো. আ. জব্বার : আনন্দ মোহন কলেজের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের ২য় বর্ষের মেধাবী ছাত্রী কেয়া আক্তার (১৯) বাঁচতে চায়। তার দুটি কিডনিই প্রায় বিকল হয়ে গেছে। ১ বছর যাবৎ সে কমিউনিটি বেজ্ড মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ময়মনসিংহ এর সহযোগী অধ্যাপক ও কিডনী রোগ বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, মেডিসিন ও কিডনী রোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ মাহমুদ জাভেদ হাসান (পরাগ) এর তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা নিচ্ছেন।
অসুস্থ কেয়া আক্তার ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার ৭নং বাকতা ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের মো. আবুল হোসেনের মেয়ে।
আবুল হোসেন ইটভাটার শ্রমিক। তার বাড়িভিটা ছাড়া তার আর কোনো জমি-জমা বা সম্পদ নেই। আবুল হোসেনের আরও একটি শারীরিক প্রতিবন্ধী মেয়ে রয়েছে।
এতদিন কেয়ার চিকিৎসা পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনের সাহায্য সহযোগিতায় চললেও বর্তমানে তার দুটি কিডনিই প্রায় নষ্ট হয়ে যাওয়ায় বেঁচে থাকার জন্য চিকিৎসকের মতে, আপাতত ডায়ালাইসিস করতে হবে এবং পরবর্তীতে একটি কিডনি প্রতিস্থাপন করতে প্রায় ২০ লক্ষ টাকার প্রয়োজন হবে। যা তার দরিদ্র পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনের পক্ষে সংগ্রহ করা সম্ভব নয়। পরিবার সূত্রে জানা যায়, এ পর্যন্ত কেয়ার চিকিৎসার জন্য প্রায় ২ লক্ষ টাকা ব্যয় হয়ে গেছে।
কেয়াকে বাঁচাতে তার পিতা-মাতা সকল রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সরকারী-বেসরকারী কর্মকর্তা সহ সমাজের বিত্তবান ও হৃদয়বান ব্যক্তির নিকট সাহায্য সহযোগিতার জন্য আবেদন জানিয়েছেন। কেয়াকে নিম্নের ঠিকানায় সাহায্য-সহযোগিতা পাঠানো যাবে- ০১৭৭৮ ০৮৯১৬৯ (বিকাশ) পার্সোনাল নাম্বার।