ফুলবাড়ীয়া-কেশরগঞ্জ সড়কের ২শ ফুট সংস্কার করলেন চেয়ারম্যান

প্রকাশিত: ৯:৩০ অপরাহ্ণ, জুন ১৪, ২০২০

মো: হেলাল উদ্দিন উজ্জল: ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া-কেশরগঞ্জ সড়কের বাক্তা ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন এলজিইডি’র পাকা রাস্তাটি ৩টি ফিসারির মালিকের খামখেয়ালীর কারণে ২শ ফুট রাস্তা সংস্কার করলেন ইউপি চেয়ারম্যান মুহাম্মদ ফজলুল হক মাখন।উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশরাফুল ছিদ্দিকের নির্দেশে গতকাল রবিবার থেকে রাস্তার কাজ শুরু করা হয়েছে।

ফুলবাড়ীয়া উপজেলার ফুলবাড়ীয়া- কেশরগঞ্জ সড়ক টি জনগগুরত্ব পূর্ণ হওয়ায় যানবাহন চলাচল সংখ্যাও বেশি। উপজেলার বাকতা ইউনিয়ন পরিষদের কাছেই ৩টি ফিসারির মালিক আবুল হোসেন, ফারুক ও সুরুজ মিয়ার খামখেয়ালিতে ফিসারী থাকায় পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় সড়কটি তলিয়ে উপর দিয়ে পানি নিস্কামন হয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়। রাস্তাটির২শত ফুট যানবাহন চলাচলেন অনুপযোগী হওয়ায় প্রায়ই সময়ই ভ্যান অটো উল্টে যায় জনদুর্ভোগ বেড়ে যায়। দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ উপজেলা সদর সহ জেলা সদরে যাতায়াতের একমাত্র রাস্তা হওয়ায় পথচারী ও যানবাহন চলাচলে ব্যাপক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে। রাস্তাটি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়। বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের দৃষ্টি গোচর হলে স্থানীয় এডিপি’র বরাদ্দ থেকে উক্ত রাস্তাটি ইটের সলিং, হেরিং বন্ড দিয়ে পূনঃ মেরামত করার জন্য ইউএনও ইউপি চেয়ারম্যানকে নির্দেশ প্রদান করে।। রাস্তাটি প্রায় ১বছর আগে এলজিইডি সংস্কার করে।

ইউপি চেয়ারম্যান মুহাম্মদ ফজলুল হক মাখন বলেন, ইউএনও স্যারের নির্দেশে এডিপি প্রকল্প থেকে রাস্তাটি সংস্কার করা হচ্ছে। তবে ফিসারির পানি নিস্কাশনের স্থায়ী কোন ব্যবস্থা না থাকায় রাস্তাটির স্থায়ীত্ব নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়।