ফুলবাড়ীয়ায় হঠাৎ বেড়েছে চোরের উপদ্রব : জনমনে আতঙ্ক

প্রকাশিত: ৬:৩৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৩০, ২০২১

মো. আ. জব্বার:

ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলায় হঠাৎ বেড়েছে চোরের উপদ্রব। রাত নামলেই উপজেলার কোথাও না কোথাও ঘটছে একাধিক চুরির ঘটনা। গ্রামাঞ্চলের বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় খোয়া যাচ্ছে স্বর্ণাঙ্কার, নগদ টাকা সহ ব্যবহার্য্য মূল্যবান জিনিসপত্র। শীত নামার সঙ্গে সঙ্গেই চোরের এমন উপদ্রবে আতঙ্ক বিরাজ করছে জনমনে। হয়রানি এড়াতে অধিকাংশ ঘটনায় মামলা হয় না থানায়।

গত রবিবার (২৮ নভেম্বর) দিবাগত রাতে উপজেলার ১নং নাওগাঁও ইউনিয়নের নাওগাঁও গ্রামের গৌর চন্দ্র আইচ ও মেগা কর্মকারের বাড়ীতে চোরের ঘটনা ঘটেছে। ঐ রাত্রে দু”টি বাড়ীতে ৭ ভরি স্বর্ণালঙ্কার সহ নগদ প্রায় ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জিনিসপত্র চুরি হয়েছে বলে বাড়ীর মালিকগণ জানিয়েছেন। নাওগাঁও গ্রামের রেবিতি মোহন আইচ এর পুত্র গৌর চন্দ্র আইচ জানান, গভীর রাত্রে চোরেরা দরজা ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে আলমিরা ও সুকেস থেকে ৫ ভরি স্বর্ণ ও নগদ ২ লক্ষ টাকা নিয়ে গেছে। ঐ রাত্রে একই গ্রামের সুরেন্দ্র কর্মকারের ছেলে মেগা কর্মকারের বাড়ীতেও চুরির ঘটনা ঘটেছে। মেগা কর্মকার জানান, বারেন্দার গ্রীল কেটে চোর ঘরে প্রবেশ করে স্টীলের আলমিরা ভেঙ্গে ২ভরি স্বর্ণ সহ নগদ ৪০ হাজার টাকা সহ দুটি স্বর্ণের চেইন চুরি করে নিয়ে গেছে। এর আগের দিন শনিবার দিবাগত রাতে উপজেলার বাকতা ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের আইয়ূব আলীর পুত্র ছিদ্দিকের ঘর থেকে ২টি এনড্রয়েট ও ১টি বাটন মোবাইল, নগদ ৪হাজার টাকা সহ মূল্যবান জিনিসপত্র চুরি করে নিয়ে গেছে চোরেরা।

এছাড়াও একই কায়দায় গত কয়েক রাত্রে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে চুরি সংগঠিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এলাকার অনেকেই জানান, জুয়া ও মাদকের অবাধ বিস্তারের কারণে দিনদিন উঠতি বয়সি তরুণেরা আসক্ত হচ্ছে। নেশার টাকার জোগান দিতেই জড়িয়ে পড়ছে চুরিসহ নানা অপরাধ কর্মকাণ্ডে। এসব চুরিরোধে থানা পুলিশের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সমাজ সচেতন মহল।