হাসপাতালে মাকে রেখে নিজেই লাশ হয়ে হাসপাতালে গেল

Jamal Jamal

Khan

প্রকাশিত: ১০:২৩ অপরাহ্ণ, জুন ২২, ২০২১

আরিফ খান প্রান্ত (১৬)। তাঁর অসুস্থ্য মা খুরশিদ জাহানকে ময়মনসিংহ একটি প্রাইভেট হাসপাতালে দেখে ফুলবাড়িয়া আসার পথে লক্ষিপুর নামক স্থানে ড্রামট্রাক ও সিএনজি’র মুখমোখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়।
মঙ্গলবার বিকালে ফুলবাড়িয়া-ময়মনসিংহ সড়কের লক্ষিপুর দাসবাড়ি সংলগ্ন সড়কে ড্রামট্রাক ও সিএনজি’র মুখমোখি সংর্ঘের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলেই আরিফ খান প্রান্ত মারা যায়। এসময় হেলনা খাতুন (৬৫)সহ দুইজন গুরুতর আহত হয়। তাঁদেরকে ময়মনসিংহ মডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়েগেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আরিফ খান প্রান্তকে মৃত ঘোষনা করেন।
ফুলবাড়িয়া অর্নাস কলেজের প্রধান সহকারী আ. লতিফ খান ও ফুলবাড়িয়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারিক খুরশিদ জাহানের দ্বিতীয় ছেলে আরিফ খান। সে ফুলবাড়িয়া সরকারি প্রাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী ও স্কাউটার।
শিক্ষক মা খুরশিদ জাহানের গত সোমবার ময়মনসিংহ একটি প্রাইভেট হাসপাতালে অপারেশন করা হয়। হাসপতালে চিকিৎসাধীন মাকে দেখে ফুলবাড়িয়ায় আসার পথে সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হয় প্রান্ত। গত দুইদিন আগে ‘প্রান্ত খান’ নামের তার ফেইসবুক আইডিতে লিখেছিল ‘আজকে শেষ দিন হলেও হতে পারে’।
স্থানীয় ইউপি সদস্য আ. রাজ্জাক বলেন, ফুলবাড়িয়াগামী একটি সিএনজিকে দ্রুতগতির ড্রামট্রাক মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই একজন মারা যায়,গুরুতর আহত হয় আরও দুই জন।
ফুলবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোহা. আজিজুল রহমান জানান, ঘাতক ড্রামট্রাক ও ধুমড়েমুচড়ে যাওয়া সিএনজি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে,এঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।